সোনালী ব্যাংকে ১ লক্ষ টাকা জমা করলেই পাবেন ৩ লক্ষ টাকা !

এবার অভিনব একটি স্কিম নিয়ে এসেছে সোনালী ব্যাংক।

এই স্কিমে টাকা জমা রাখলেও পাওয়া যাবে তিনগুণ মুনাফা!

সোনালী ব্যাংকের ট্রিপল বেনিফিট স্কিম দিচ্ছে এই সুবিধাঠিক কীভাবে পাওয়া যাবে এই তিনগুণ মুনাফা সেটা এবার দেখে নেয়া যাক।

এককালীন এই স্কিমে টাকা জমা রাখতে হবে কমপক্ষে ৫০ হাজার বা এর গুণিতক হিসেবে।

প্রাপ্য মুনাফার হার থাকবে ৯ শতাংশ (চক্রবৃদ্ধি হারে)।

পূরন মেয়াদে অর্থাৎ ১২ বছর ৯ মাসে এই স্কিমের টাকার পরিমাণ হবে তিনগুণ।

ট্রিপল বেনিফিট স্কীম (TBS) Triple benefit scheme: সময় কাল: মুনাফার হার ৯.০০% (চক্রবৃদ্ধি) ৬ মাস পূর্তিতে ৩.০০% সরল মুনাফা।

১ বছর পূর্তিতে ৩.৫০% সরল মুনাফা।

২ বছর পূর্তিতে ৪.০০% সরল মুনাফা। ৩ বছর পূর্তিতে ৪.৫০% সরল মুনাফা।

৪ বছর পূর্তিতে ৫.০০% সরল মুনাফা। ৫ বছর পূর্তিতে ৫.৫০% সরল মুনাফা।

তবে সময়ের সাথে সাথে মুনাফার হারও বাড়তে থাকবে। ৬ বছর পূর্তিতে ৬.০০% সরল মুনাফা।

৭ বছর পূর্তিতে ৬.৫০% সরল মুনাফা। ৮ বছর পূর্তিতে ৭.০০% সরল মুনাফা। ৯ বছর পূর্তিতে ৭.৫০% সরল মুনাফা।

১০ বছর পূর্তিতে ৮.০০% সরল মুনাফা। ১১ বছর পূর্তিতে ৮.৫০% সরল মুনাফা।

১২ বছর পূর্তিতে ৯.০০% সরল মুনাফা। ১২ বছর ৯ মাস পূর্তিতে ৯.০০% চক্রবৃদ্ধি মুনাফা।

এই স্কিমে টাকা রেখে তিনগুণ টাকা প্রাপ্তির ক্ষেত্রে অবশ্য বেশ কিছু শর্তও রয়েছে।

সরকারী নিয়মানুসারে উৎসে কর এবং আবগারী শুল্ক আমানতকারীর হিসাব হতে কর্তন করা হবে।

মেয়াদ উত্তীর্ণের পূর্বে টিবিএস হিসাব ভাঙলে উপরল্লিখিত মুনাফার হার প্রযোজ্য হবে তবে পূর্বে খোলা হিসাব সমূহের নীতিমালা সংশ্লিষ্ট সারকুলার/পরিপত্র অনুযায়ী পরিচালিত হবে।

শুধু তাই নয়, অন্যান্য শর্তের মধ্যে রয়েছে, হিসাব খোলার নিয়মাবলী যথাযথভাবে অনুসরণ পূর্বক প্রতিষ্ঠানের নামেও এ হিসাব খোলা যাবে। মেয়াদ পূর্তিতে মুনাফার পরিমাণ হ্রাস / বৃদ্ধি পেলে শাখায় সুদ হিসাব সমন্বয়ের মাধ্যমে আমানতকারীকে বিধি মোতাবেক প্রাপ্য অর্থ পরিশোধ করতে হবে।

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.