সিরিজ থেকে সরে দাঁড়াচ্ছেন বিরাট কোহলি বিতর্কে জর্জরিত বোর্ড

দক্ষিণ আফ্রিকার সফর যেন একটা রঙ্গমঞ্চ ভারতীয় ক্রিকেটে। সফরের শুরুতে একেরপর এক বিতর্কে জর্জরিত বোর্ড। এবার শোনা গেল একদিনের সিরিজ থেকে সরে দাঁড়াচ্ছেন বিরাট কোহলি (Virat Kohli)। সূত্রের খবর, জানুয়ারি মাসে মেয়ে ভামিকার (Vamika) প্রথম জন্মদিন উপলক্ষ্যে সপরিবারে ছুটি কাটাতে যাবেন বিরাট।

গতকাল টেস্ট দল থেকে ছিঁটকে গেছেন রোহিত শর্মা। আঙুলে চোটের কারণে তাঁকে ছিঁটকে যেতে হয়েছে। ফলে তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজে তিনি খেলবেন না। সম্প্রতি তাঁকে টেস্টে সহ অধিনায়ক হিসেবে ঘোষণা করেছিল বোর্ড। একই সঙ্গে বোর্ড বিরাটকেও একদিনের ক্রিকেটের অধিনায়কত্ব থেকে সরিয়ে দেয়। সেই দায়িত্ব দেয় রোহিত শর্মাকে। দুুই অধিনায়কের নতুন দায়িত্বই দুজন থাকবেন না। এটা কাকতালীন নাকি পরিকল্পিত সেই চর্চায় মশগুল সমর্থকরা। কয়েকজন বলেন, দেশের থেকেও এদের ইগো বেশি হয়ে গেছে তাই এই সমস্যা হচ্ছে।

এক টুইটার ব্যবহারকারী টুইটে লেখেন, ‘আমি কিছু বিতর্কিত ভাবছি, যেটা আপনাদের সঙ্গে ভাগ করে নিতে চাই। রোহিত টেস্ট খেলবে না আর বিরাট একদিনের সিরিজ খেলবে না। আপনারা বুঝতে পারছেন খটকাটা কোথায় লাগছে। বিরাট সিরিজের সময়েই ওর পরিবারের সঙ্গে ছুটি কাটানোর পরিকল্পনা করছে।’ গত বছর বিরাটের কন্যার জন্মের সময় তিনি অস্ট্রেলিয়ায় টেস্ট সিরিজের মাঝপথে চলে এসেছিলেন। প্রথম টেস্টে নেতৃত্ব দিলেও দ্বিতীয় টেস্ট থেকে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন অজিঙ্কা রাহানে।

বিরাটকে একদিনের ক্রিকেটে অধিনায়কত্ব থেকে সরিয়ে দেওয়ার পর বিতর্ক কম হয়নি। শোনা যায়, বিরাটের সঙ্গে আলোচনা না করেই অধিনায়কত্ব থেকে সরিয়েছিল বোর্ড। শেষে তারা বিরাটকে ৪৮ ঘণ্টার সময় দিয়েছিল সরে দাঁড়ানোর জন্য। কিন্তু বিরাট তা না করায় সময় পেরিয়ে যাওয়ার পরেই বোর্ড ঘোষণা করে দেন রোহিতের নাম। যা নিয়ে বিরাটের সঙ্গে কথা কাটাকাটিও হয় বোর্ডের। এরপর বিরাটকে ধন্যবাদ জানিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় বোর্ডের পোস্ট হোক বা সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের সাংবাদিকদের মুখোমুখি হওয়া তাতেও চিঁড়ে ভেজেনি যে সেটার প্রমাণ মিলল এবার। গতকাল BCCI কে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে বিরাটের নেতৃত্বের প্রশংসা করেন রোহিত শর্মা। তিনি জানিয়েছিলেন, বিরাটের নেতৃত্বে খেলা উপভোগ করেন তিনি।

ভারতীয় দলে বর্তমান পরিস্থিতিতে বিশেষজ্ঞদের একাংশের মতে, দলে যে সমস্যা চলছে তা দ্রুত না সমাধান করলে বড় ইভেন্টে সমস্যায় পড়বে দল। সেক্ষেত্রে ২০২১ সালের টি-২০ বিশ্বকাপের ছবি আবার দেখা গেলে অবাক হওয়ার কিছু থাকবে না।

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.