সফলতম অধিনায়ক বিরাটকে সরাতেই যে কারনে তোপের মুখে পরেছেন সৌরভ

একদিনের ক্রিকেটের অধিনায়ক পদে বিরাট কোহলিকে সরিয়ে রোহিত শর্মাকে নিয়ে আসা এসেছে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড। এই খবর ছড়িয়ে পড়তে না পড়তেই টুইটারে নেট নাগরিকদের মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখতে পাওয়া যায়।

কিছু কিছু সমর্থকেরা এই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানালেও অনেকেই আবার কোহলিকে পদচ্যুত করার সিদ্ধান্তে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের বিরুদ্ধে তোপ দেগেছেন। তবে সমর্থকদের সবথেকে বড় রাগের কারণ, এই তথ্যটা বিসিসিআই যেভাবে সোশ্যাল মিডিয়ায় পেশ করেছে; সেই জায়গায় বিরাট কোহলিকে আলাদা করে কোনও কৃতিত্ব দেওয়া হয়নি।

একটি সাধারণ টুইট করে BCCI জানিয়েছে, ‘সর্বভারতীয় সিনিয়র নির্বাচক কমিটি এই সিদ্ধান্তে উপনীত হয়েছে যে রোহিত শর্মাকে ওডিআই এবং টি-২০ ক্রিকেটে অধিনায়ক হিসেবে নির্বাচন করা হয়েছে। তিনিই আগামীদিনে ভারতীয় ক্রিকেট দলকে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাবেন।’

তবে এই গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত গ্রহণ করার আগে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের পক্ষ থেকে আলাদা করে বিরাট কোহলিকে ফোন করে আলোচনা করা হয়েছিল কি না, তা নিয়ে বিস্তারিত কিছুই জানা যায়নি।

তবে এই সিদ্ধান্ত গ্রহণের পরেই ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের দিকে ধেয়ে আসতে থাকে একের পর এক সমালোচনার তির। আর বিরাট কোহলিকে পদচ্যুত করার জন্য সবথেকে বেশি সমালোচিত হচ্ছেন BCCI প্রেসিডেন্ট সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়।

সমর্থকদের দাবি, হতেই পারে যে ক্রিকেট দলে অধিনায়ক বদল করা হবে। কিন্তু, সিদ্ধান্ত প্রকাশ্যে আনার পর অন্তত একবার অধিনায়ক হিসেবে বিরাটের সাফল্যের খতিয়ান তুলে ধরতে পারত ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড।

কিন্তু, রাতারাতি কেন এমন সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হল, তা নিয়ে ইতিমধ্যেই শুরু হয়ে গিয়েছে জল্পনা। এই সিদ্ধান্ত গ্রহণের পিছনে আসলে কে রয়েছেন, সেইদিকেও নজর রাখছেন ভারতীয় ক্রিকেট দলের সমর্থকেরা। তবে একটা ব্যাপার বেশ পরিষ্কার যে বোর্ডের এই সিদ্ধান্তে দেশের অধিকাংশ ক্রিকেট সমর্থকই একেবারে খুশি নন। আর সেটা তাঁদের টুইট থেকেই স্পষ্ট হয়ে গিয়েছে।

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.