রবিচন্দ্রন অশ্বিনের বোলিং ঘূর্ণিতে জয়ের দোরগোড়ায় ভারত

জিম লেকর ও অনিল কুম্বলে দশ-এ দশ করে তাঁদের দলকে সেই টেস্ট জিতিয়েছিলেন। তবে আজাজ প্যাটেল এমন সৌভাগ্য হবে না। কারণ চলতি ওয়াংখেড়ে টেস্টের প্রথম ইনিংসে ৬২ রানে অল আউট হয়ে যাওয়ার পর দ্বিতীয় ইনিংসে নিউজিল্যান্ডের ব্যাটিং ব্যর্থতা বজায় রয়েছে।

দ্বিতীয় ইনিংসে ১৪০ রানে ৫ উইকেট হারানোর জন্য চলতি টেস্টে জয়ের দোরগোড়ায় ভারত। সৌজন্যে রবিচন্দ্রন অশ্বিনের দুরন্ত বোলিং। প্রথম ইনিংসে ৮ রানে ৪ উইকেট নেওয়ার পর দ্বিতীয় ইনিংসেও ভয়ঙ্কর হয়ে উঠলেন এই অফ স্পিনার।

এখনও পর্যন্ত নিলেন ২৭ রানে ৩ উইকেট। ফলে চলতি টেস্ট জিতে সিরিজ পকেটে পুরতে আর মাত্র ৫ উইকেট দূরে কোহলিবাহিনী। সেখানে নিউজিল্যান্ডের জেতার জন্য দরকার এখনও ৪০০ রান। সেটা এখন কঠিন বলেই মনে করছেন ক্রিকেট পন্ডিতরা।

ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামে ভারতের দাপট চলছে। ৫৩৯ রানের বিশাল লিড নিয়ে ইনিংস ডিক্লেয়ার করেছিলেন বিরাট কোহলি। জবাবে ব্যাট করতে নেমে অশ্বিনের ঘূর্ণির সামনে শুরু থেকেই চাপে ছিল নিউজিল্যান্ড।

এরই মধ্যে রবিবার ভাইরাল হল গ্যালারি থেকে তুলে ধরা একটি প্ল্যাকার্ডের ছবি। কিউইদের দ্বিতীয় ইনিংস চলার সময় এক কিশোরী গ্যালারি থেকে একটি প্ল্যাকার্ড তুলে ধরেন। তাতে লেখা ছিল, ‘টিম ইন্ডিয়া, আজই ম্যাচ শেষ করে দাও। কাল আমাদের স্কুল রয়েছে।’

এ দিকে নিউজিল্যান্ডের দ্বিতীয় ইনিংসে টস টেলরকে প্যাভিলিয়ানে ফেরাতেই কিংবদন্তি রিচার্ড হ্যাডলির রেকর্ড স্পর্শ করলেন অশ্বিন। ভারত বনাম নিউজিল্যান্ডের লড়াইয়ে এই নিয়ে মোট ৬৫ উইকেটের মালিক হয়ে গেলেন তিনি। ১৭টি ইনিংস খেলেই এই মাইলস্টোন ছুঁলেন তিনি। যেখানে ২৪টি ইনিংসে ৬৫ উইকেট পেয়েছিলেন হ্যাডলি।

দ্বিতীয় টেস্টের তৃতীয় দিন ৭ উইকেটে ২৭৬ রান করে দ্বিতীয় ইনিংস ডিক্লেয়ার করে দিল ভারতীয় দল। ভারতের লিড ৫৩৯ রানের। জয় যে নিশ্চিত সেটা আগে থেকেই জানা ছিল। অশ্বিনের দাপটে চতুর্থ দিন সেই কাঙ্খিত জয় স্রেফ সময়ের অপেক্ষা।

দ্বিতীয় ইনিংসে সর্বোচ্চ ৬২ রান করেন প্রথম ইনিংসে ১৫০ করা ওপেনার ময়ঙ্ক আগরওয়াল। ওপেন করতে নেমে চেতেশ্বর পূজারা করেন ৪৭ রান। দ্বিতীয় দিনে ফিল্ডিং করার সময় শুভমন গিলের ডান হাতের মধ্যমা কেটে যায়।

তবে এই পঞ্জাব তনয় করলেন ৪৭ রান। অধিনায়ক বিরাট কোহলির ব্যাট থেকে এল ৩৬ রান। শ্রেয়স আইয়ার ১৪, ঋদ্ধিমান সাহা ১৩ রান করেন। অক্ষর পটেল ২৬ বলে ৪১ রানের ঝোড়ো ইনিংস খেলে অপরাজিত থাকেন। তাঁর ইনিংসে ছিল চারটি ছক্কা ও তিনটি বাউন্ডারি। জয়ন্ত যাদব করেন ৬ রান। তিনি আউট হয়ে যেতেই ইনিংস ডিক্লেয়ার করে দেন কোহলি।

সামনেই দক্ষিণ আফ্রিকা সফর। এর আগে কিউইদের বিরুদ্ধে টেস্ট জয় রাহুল দ্রবিড়ের আত্মবিশ্বাস নিশ্চিত বাড়াবে। একইসঙ্গে কেন উইলিয়ামসনের দলকে টি-টোয়েন্টি সিরিজে হারানোর পর এ বার কোচ হিসেবে প্রথম টেস্ট সিরিজ জিতে নতুন ইনিংস শুরু করলেন ‘দ্যা ওয়াল’।

চলতি বছরের জুনে এই নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে বিশ্ব টেস্ট ফাইনাল খেলার পর তিনি প্রথম একাদশের বাইরে ছিলেন। ইংল্যান্ড সফরে জো রুটদের বিরুদ্ধে খেলার সুযোগ পাননি অশ্বিন। তবে দমে যাওয়ার পাত্র তিনি নন। চলতি সিরিজে ২ টেস্টে এখনও পর্যন্ত ১৩ উইকেট নিয়ে সেটা কোহলির চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিলেন অশ্বিন।

ভারত: ৩২৫/১০ (প্রথম ইনিংস) ও ২৭৬/৭ দ্বিতীয় ইনিংস ডিক্লেয়ার্ড (ময়ঙ্ক-৬২, পূজারা-৪৭, গিল-৪৭, প্যাটেল-১০৬/৪, রবীন্দ্র-৫৬/৩)
নিউজিল্যান্ড: ৬২/১০ ও ১৪০/৫ (মিচেল-৬০)
নিউজিল্যান্ড ৪০০ রানে পিছিয়ে

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.