ভারতের এই ছয় অধিনায়কের নেতৃত্বে দল কখনো পরাজয়ের মুখোমুখি হয় নি

এমন খুব অল্প সংখ্যক খেলোয়াড় আছেন যারা ভারতীয় ক্রিকেটকে অনেক উন্নতির শিখরে পৌঁছে দিতে পারতো। কপিল দেবের বিশ্বকাপ জয় থেকে শুরু করে সৌরভ গাঙ্গুলীর নেতৃত্বে বিদেশের মাটিতে জয় এবং মহেন্দ্র সিং ধোনির নেতৃত্বে তিনটে আইসিসি ট্রফি জেটা। কিন্তু এমন ছয় জন খেলোয়াড় আছে যাদের নেতৃত্বে ভারত কখনো পরাজয়ের মুখোমুখি হয় নি।

1988 সালে একটি টেস্ট ম্যাচে নেতৃত্ব দিয়েছিল রবি শাস্ত্রী। 255 রানে ওই ম্যাচে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে জিতেছিল ভারত। তারপর আর কোনদিন তাকে কোন ম্যাচে নেতৃত্ব দিতে হয়নি।

টেস্ট ম্যাচের অধিনায়কত্ব করলেও অনিল কুম্বলে একটি ওয়ানডে ম্যাচের নেতৃত্ব দিয়েছিলেন ভারতকে। বিরুদ্ধে 2002 সালের তৃতীয় ওয়ানডে ম্যাচে কার নেতৃত্বে ভারত 8 উইকেটে ম্যাচ জিতেছিল। আর কোন ওয়ানডেতে তারপরে তাকে নেতৃত্ব দিতে হয়নি।

2006 সালে বীরেন্দ্র শেহবাগের নেতৃত্বে ভারত প্রথম আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেছিল আফ্রিকার বিরুদ্ধে। প্রথম টি-টোয়েন্টি আন্তর্জাতিক ম্যাচে ভারত কে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন সেহ্বাগ। কুড়ি ওভারের দক্ষিণ আফ্রিকা 126 রান করেছিল। এক বল বাকি থাকতেই সে রান তুলে দিয়েছিল ভারতীয় টিম। তারপর থেকে সে আর নেতৃত্ব দেয়নি টিমকে।

2010 জিম্বাবুয়ে সফরে মহেন্দ্র সিং ধোনিকে বিশ্রাম দেয়া হয়েছিল তার বদলে সুরেশ রায়না দলকে নেতৃত্ব দিয়েছিল। তিন ম্যাচের সিরিজে তিনটিতেই ভারতে জিতেছিল। ধোনি তারপর দলে ফিরলে রায়না তার ক্যাপ্টেন্সির জায়গা থেকে সরে যেতে হয়।

ছয়টা ওয়ানডে ম্যাচের নেতৃত্ব দেয়ার সুযোগ পেয়েছিল গৌতম গম্ভীর। তার নেতৃত্বে সবকটি ম্যাচে ভারত জিতেছে। নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে সবকটি ম্যাচ জিতেছিল ভারত।তিনি ১০৯ ব্যাটিং গড় নিয়ে ৩২৯ রান করেছিলেন। এরপর আরও একটি ওয়ানডে ম্যাচে তিনি দলকে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন সেটি ছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে।

রাহানের নেতৃত্বে অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে লাস্ট 2 টি সিরিজ জয়লাভ করেছে ভারত। শেষ বারের অস্ট্রেলিয়া সফর ভারত জিতেছে তার নেতৃত্বে। বিরাট কোহলি অনুপস্থিতিতে ঘরের মাঠে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্ট না জিততে পারলেও ড্র করে দিয়েছে রোহানের ভারত। জিম্বাবুয়ে সফরে 2015 সালে তিনি ভারতীয় দলের অধিনায়ক হয়ে 3-0 তে জিম্বাবুয়েকে ওয়ানডেতে হারিয়ে দেয় ভারত।

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published.