ভারতীয় বোলার অশ্বিনকে সতর্ক করায় কড়া সমালোচনায় আম্পায়ার

চলমান কানপুর টেস্টে বল করার সময় বেশ কয়েকবার নন স্ট্রাইকিং প্রান্তের ব্যাটারের সামনে চলে আসার অভিযোগে রবিচন্দ্রন অশ্বিনকে সতর্ক করেছেন আম্পায়ার। এর ফলে আম্পায়ারের কড়া সমালোচনা করেছেন সাবেক ভারতীয় ওপেনার সুনীল গাভাস্কার।

তিনি ক্রিকেটের আইন নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন। তৃতীয় দিনের খেলা শেষে ভারতের অধিনায়ক আজিঙ্কা রাহানে জানিয়েছিলেন, অশ্বিন ডেঞ্জার জোনে না গেলেও এই স্পিনারকে সতর্ক করে দিয়েছেন আম্পায়ার।

গাভাস্কার বলেন, ‘রাহানে বলছিল অশ্বিন তো ক্রিজের মধ্যে ‘ডেঞ্জার জোনে’ বা বিপজ্জনক জায়গায় যায়নি। তাহলে সমস্যা কোথায়। আমার মনে হয় আম্পায়াররা পুরো ঘটনা বুঝতে পারেননি।

কেন সতর্ক করা হল? এ ক্ষেত্রে শাস্তি দেওয়ার জন্য কি ক্রিকেটে কোনও লিখিত আইন রয়েছে? যদি বল ব্যাটারের হেলমেটে লাগত তাহলে শাস্তির প্রসঙ্গ আসত। কিন্তু অশ্বিন সে রকমের কিছু করেনি।’

বোলিং প্রান্তে সবসময়ই নিরাপদ দূরত্ব বজায় রেখে দাঁড়ান ব্যাটার। এক্ষেত্রে বোলিং প্রান্তে বোলার কোথায় দাঁড়াবেন সেই সিদ্ধান্ত নেয়ার অধিকার বোলারের আছে বলেই মনে করেন গাভাস্কার। আম্পায়ারের অভিযোগ ছিল অশ্বিনের কারণে ব্যাটারের রান নিতে সমস্যা হচ্ছিলো। এই বিষয়টি ভালো লাগেনি এই সাবেক ওপেনারের।

গাভাস্কারের ভাষ্য, ‘আম্পায়াররা বলেছে ব্যাটারের রান নিতে সমস্যা হচ্ছিল। তা হলে সে অন্য দিকে দাঁড়াতে পারত। অপর প্রান্তে থাকা ব্যাটার কোথায় দাঁড়াবে সেটা বোলারের ঠিক করার অধিকার রয়েছে।’

কনপুর টেস্টের তৃতীয় দিন অশ্বিনকে দেখা গেছে অপর প্রান্তের ব্যাটারের দিকে তিনি এগিয়ে যাচ্ছেন। এর ফলে তিন রান নিতে গেলে ব্যাটসম্যানকে সমস্যায় পড়তে হতো। একবার আম্পায়ার সতর্ক করার পরও একই ঘটনা পুনরাবৃত্তি হলে এরপর অধিনায়ককেও ডেকে সতর্ক করে দেন আম্পায়ার।

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.