ভাগ্যের চাকা ঘুরে বিদায়ী প্রধান কোচ থেকে কমিশনার রবি শাস্ত্রির

একইসঙ্গে একই দলে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে খেলবেন সনৎ জয়সুরিয়া, শহিদ আফ্রিদি, শোয়েব আখতার, চামিন্দা ভাস, মুত্তিয়া মুরালিধরনের মত ক্রিকেটার। কেমন হবে দেখতে?

না, কোনো স্বপ্ন নয়। ক্রিকেটে অনেক আগেই তারা সাবেক হয়ে গেছেন। তবে, মাঝে-মধ্যেই নানারূপে তাদেরকে মাঠ মাতাতে দেখা যায়। তেমনই সাবেকদের টুর্নামেন্ট লেজেন্ডস ক্রিকেট লিগে এশিয়ান লায়ন্সের হয়ে একই ছাতার নিচে খেলবেন সাবেক এই তারকা ক্রিকেটাররা।

বিশ্ব ক্রিকেটের ইতিহাসে তারা কিংবদন্তি। ক্রিকেট খেলা ছেড়েছেন দীর্ঘদিন। তবু তাদের জনপ্রিয়তা কমেনি একটুও। সে সমস্ত কিংবদন্তি ক্রিকেটারদের নিয়েই অনুষ্ঠিত হতে চলেছে লেজেন্ডস ক্রিকেট লিগ (এলসিএল)।

আপাতত যা খবর তাতে ত্রিদলীয় টুর্নামেন্ট হওয়ার কথা। এশিয়ান লায়ন্সের হয়ে খেলবেন শহিদ আফ্রিদি, শোয়েব আখতার এবং সনৎ জয়সুরিয়ার মতন কিংবদন্তি ক্রিকেটাররা।

প্রসঙ্গতঃ সাবেক ক্রিকেটারদের নিয়ে আগামী জানুয়ারিতে শুরু হবে এই পেশাদার ক্রিকেট লিগের উদ্ধোধনী আসর। ওমানের আল আমিরাত ক্রিকেট স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে তিন দলের এই প্রতিযোগিতা।

এশিয়ান লায়ন্স ছাড়াও লেজেন্ডস ক্রিকেট লিগের উদ্ধোধনী আসরে খেলবে ভারত এবং এশিয়ার পাশাপাশি বিশ্বের বাকি দেশের কিংবদন্তি ক্রিকেটারদের সম্মিলিত একটি দল।

লেজেন্ড ক্রিকেট লিগের কমিশনার হিসেবে নিযুক্ত হয়েছেন ভারতের সদ্য বিদায়ী প্রধান কোচ রবি শাস্ত্রি। শাস্ত্রির অভিমত যথেষ্ট শক্তিশালী দল গড়েছে এশিয়ান লায়ন্স। টুর্নামেন্টে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হবে বলে ও মনে করেন রবি শাস্ত্রী।

শাস্ত্রী জানিয়েছেন, ‘এখানে বিশ্বমানের ক্রিকেট হবে। পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কা, বাংলাদেশ এবং আফগানিস্তানের ক্রিকেটাররা একই দলে এশিয়ান লায়ন্সের হয়ে খেলবেন।

ফলে টুর্নামেন্ট যে প্রতিযোগিতাপূর্ণ হবে তা বলাই বাহুল্য। আফ্রিদি, মুরলি, চামিন্দা, শোয়েব মালিকের মতো চ্যাম্পিয়ন ক্রিকেটাররা একই দলে খেলছে যা অভূতপূর্ব।’

উল্লেখ্য এশিয়ান লায়ন্সের হয়ে খেলবেন পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কা, বাংলাদেশ এবং আফগানিস্তানের কিংবদন্তি ক্রিকেটাররা। ভারতের দলের হয়ে খেলবেন শুধুমাত্র ভারতের সাবেক ক্রিকেটাররা। আর অন্য দলের হয়ে খেলবেন এশিয়া ছাড়া বিশ্বের বাকি দেশের ক্রিকেটাররা।

একনজরে এশিয়ান লায়ন্স স্কোয়াড
শোয়েব আখতার, শহিদ আফ্রিদি, সনৎ জয়সুরিয়া, মুত্তিয়া মুরালিধরন, চামিন্দা ভাস, রমেশ কালুভিথারানা, তিলকারত্নে দিলশান, আজহার মামুদ, উপুল থারাঙ্গা, মিসবাহ-উল-হক, মোহাম্মদ হাফিজ, শোয়েব মালিক, মোহাম্মদ ইউসুফ, উমর গুল, ইউনিস খান এবং আসগর আফগান।

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.