নিজের বিপদের দিনে যে এক জন কে পাশে পাচ্ছে বিরাট কোহলী

বিরাট কোহলীকে একদিনের অধিনায়কত্ব থেকে সরানো নিয়ে তরজা চলছেই। কেউ বোর্ডের এই সিদ্ধান্তের সমর্থন করেছেন, কেউ বা বোর্ডকে তুলোধনা করেছেন। দ্বিতীয় তালিকায় রয়েছেন মদন লাল।

ভারতের প্রাক্তন অলরাউন্ডার তথা প্রধান কোচের মতে, একদিনের ক্রিকেটে অধিনায়ক হিসেবে কোহলীর যা রেকর্ড, তাতে তাঁকে সেই পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া একেবারেই উচিত হয়নি। তিনি এ ব্যাপারে দোষ দেখছেন নির্বাচকদেরই।

মদন বলেছেন, “জানি না ওরা (নির্বাচকরা) কী ভাবে এই সিদ্ধান্ত নিল। যখন কোহলী ওদের কাঙ্ক্ষিত ফল এনে দিচ্ছে তখন ওকে সরানোর কী দরকার ছিল? টি-টোয়েন্টি থেকে ওর সরে যাওয়াটা বুঝতে পেরেছি।

কারণ এখন এত ক্রিকেট খেলা হয় যে একসঙ্গে তিনটি ফরম্যাটে নেতৃত্ব দেওয়া সহজ ব্যাপার নয়। কিন্তু সফল হওয়ার পরেও যখন আপনাকে সরে যেতে হয় তখন আঘাত লাগবেই। ভেবেছিলাম ২০২৩ বিশ্বকাপ পর্যন্ত কোহলীকে রেখে দেওয়া হবে। কিন্তু একটা দলকে ধ্বংসের পথে ঠেলে দেওয়া হচ্ছে না তো?”

সাদা বলে দু’টি ফরম্যাটে দু’ জন আলাদা অধিনায়ক থাকার বিপক্ষে যে কথা বলেছিলেন বোর্ড সভাপতি সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়, তারও বিরোধিতা করেছেন মদন। বলেছেন, “কেন সমস্যা সেটাই বুঝতে পারছি না।

দু’জন অধিনায়কের দু’রকম কৌশল রয়েছে। এতে সমস্যার কী আছে। এখন তো এমনিতেই টেস্ট এবং সীমিত ওভারে নেতৃত্বের ধরন বদলে যাবে। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে পেশাদারিত্বই আসল।”

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.