টানা ২ বছর পর মায়াঙ্কের সেঞ্চুরিতে রুদ্ধশ্বাস ম্যাচে প্রান ফিরে পেল টিম ইন্ডিয়া

দুরন্ত সেঞ্চুরি করে ভারতকে লড়াইয়ে রাখলেন মায়াঙ্ক আগারওয়াল। আজাজ প্যাটেলের দারুন বোলিং সত্ত্বেও ভারত সুবিধাজনক জায়গায়।

দু বছর শতরান নেই মায়াঙ্ক আগারওয়ালের ব্যাটে। এমন অবস্থায় চাপ বাড়ছিল। শেষমেশ ওয়াংখেড়েতে কেরিয়ারের চতুর্থ টেস্ট হান্ড্রেড হাঁকিয়ে দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে যাওয়ার জন্য নিজের জন্য জোরালো আর্জি জানিয়ে রাখলেন।

আজাজ প্যাটেল ঘূর্ণিতে নাস্তানাবুদ করছিলেন। তাঁর শিকারের তালিকায় শুভমান গিল থেকে কোহলি-পূজারা। তবে মায়াঙ্ককে টলাতে পারলেন না কিউয়ি স্পিনার। দিনের শেষে ভারত ২২১/৪। মায়াঙ্ক একাই ১২০-তে অপরাজিত।

২০১৯-এ মায়াঙ্ক শেষবার সেঞ্চুরি করেন ইন্দোর টেস্টে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে। দ্বিশতরান হাঁকিয়ে শেষমেশ থেমেছিলেন তিনি।

তারপরে ব্যাট হাতে মোটেই রানের মধ্যে ছিলেন না তিনি। সাত টেস্টে মাত্র একটিতে ফিফটি প্লাস স্কোর করেছিলেন।

কানপুরেও দুই ইনিংসে মায়াঙ্ক ১৩, ১৭ রানে আউট হওয়ার পরে জায়গা নিয়ে প্রশ্ন উঠে গিয়েছিল। জল্পনা ওঠে, দক্ষিণ আফ্রিকার দলে তাঁকে না-ও রাখা হতে পারে। এমন আবহেই এল সেঞ্চুরি।

ভিজে আউটফিল্ডের কারণে ম্যাচ শুক্রবার আড়াই ঘন্টা দেরিতে শুরু হয়। মায়াঙ্ক-গিল ওপেনিংয়ে ৮০ তুলে দেন। তবে এরপরেই শুরু হয় আজাজ প্যাটেলের দারুণ স্পেল।

প্রথমে গিলকে ফেরান তিনি। তারপরে অল্প রানের ব্যবধানে আজাজের শিকার পূজারা, কোহলি। দুজনেই শূন্য রানে প্যাভিলিয়নে ফেরেন। কিছুক্ষণ পরে শ্রেয়স আইয়ারের উইকেটও দখল করেন ভারতীয় বংশোদ্ভূত কিউয়ি স্পিনার।

বিপর্যয়ের মুখে শেষমেশ ভারতকে মোটামুটি ভাল জায়গায় পৌঁছে দেয় মায়াঙ্কের সঙ্গে ঋদ্ধিমান সাহার (২৫) অপরাজিত হাফসেঞ্চুরি পার্টনারশিপ।

ভারতের প্ৰথম একাদশ:
মায়াঙ্ক আগারওয়াল, শুভমান গিল, চেতেশ্বর পূজারা, বিরাট কোহলি, শ্রেয়স আইয়ার, ঋদ্ধিমান সাহা, জয়ন্ত যাদব, অক্ষর প্যাটেল, রবিচন্দ্রন অশ্বিন, উমেশ যাদব, মহম্মদ সিরাজ

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.