চমক দিয়ে এবারের বিপিএল মাতাতে যাচ্ছেন ৪ ভারতীয় মহা তারকা

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) এবারের আসরের পর্দা উঠছে আগামী ২১ জানুয়ারি। ফাইনাল অনুষ্ঠিত হবে আগামী ১৮ ফেব্রুয়ারি। এদিকে বিপিএলের ড্রাফট অনুষ্ঠিত হবে আগামী ২৭ ডিসেম্বর। ড্রাফটে রাখা হয়েছে ২৮১ জন বিদেশি ক্রিকেটারকে।

বিপিএলের সময়ে পাকিস্তান সুপার লিগ (বিপিএল) চললে ড্রাফটে রয়েছেন ৪৪ জন পাকিস্তানি ক্রিকেটার। যেখানে রয়েছেন এর আগে বিপিএল মাতিয়ে যাওয়া আহমেদ শেহজাদ, মোহাম্মদ ইরফান এবং জুনায়েদ খানের মতো অভিজ্ঞ ক্রিকেটাররা।

এই তালিকায় রয়েছেন হারিস সোহেল, মোহাম্মদ আসাদ আফ্রিদি, মোহাম্মদ ইরফান, উসমান শিনওয়ারি, আবিদ আলী, আকিফ জাভেদ, বিলওয়ালে ভাট্টি, এহসান আদিল, ফাওয়াদ আলম, ইমাম উল হক, মীর হামজা, জুনায়েদ খান, ইয়াশির শাহ, আবরার আহমেদ, আখতার শাহ, আলী ইমরান, আলী শফিক, আমদ বাট, আরিশ আলী খান, আজগর দোরানি।

এ ছাড়াও বিপিএলের ড্রাফটে নাম রয়েছে এওয়াইজ জিয়া, হাম্মাদ আজম, হাসিবুল্লাহ, হাসান খান, ইফতেসাম ইনজামামাম, ইমরান বাট, মাহিন্দার পাল, মোহাম্মদ আব্বাস, মোহাম্মদ ইমরান, মোহাম্মদ ইসমাইল, সালমান আলী, মোহাম্মদ তাহা, জায়েদ আলম, মুক্তার আহমেদ, নওমান আলী, সাদ নাসিম, শাহেদজাদা ফারহান, সাইফ বাদার, সাইন আইয়ুব, সার্মাদ আনোয়ার, সৌদ সাকিল, শোহাইবউল্লাহ, সোহেল খান, বিসমিল্লাহ খান।

পাকিস্তান ছাড়াও বিপিএলের ড্রাফটে রয়েছে ভারতের ৪ ক্রিকেটারের নাম। তারা হলেন, গৌরব শর্মা , ইশান মালহোত্রা, বিপুল শর্মা, সুদীপ তিয়াগি। বিদেশি ক্রিকেটারদের ড্রাফটের তালিকায় এ ‘গ্রেডে’ রয়েছেন শ্রীলঙ্কার ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গা, ইংল্যান্ডের বেন ফোকস এবং আফগানিস্তানের রহমানুল্লাহ গুরবাজরা।

এবারের বিপিএলে অংশ নিচ্ছে মোট ছয়টি দল। আর প্লেয়ার্স ড্রাফট অনুষ্ঠিত হবে আগামী ২৭ ডিসেম্বর। এবারের আসরে মোট ৩৪ টি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে। পুরো টুর্নামেন্ট হবে রাউন্ড রবিন লিগ পদ্ধতিতে।

সেই সঙ্গে তিনটি প্লে অফ ও ফাইনাল অনুষ্ঠিত হবে। ভেন্যু হিসেবে রাখা হয়েছে মিরপুর শের ই বাংলা স্টেডিয়াম, চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরি স্টেডিয়াম ও সিলেট আন্তর্জাতিক স্টেডিয়াম।

প্রতিটি দল একাদশে সর্বোচ্চ ৩ জন বিদেশি ক্রিকেটার খেলাতে পারবে। আর চ্যাম্পিয়ন দল প্রাইজমানি হিসেবে পাবে ১ কোটি টাকা। আর রানার্স আপ দল পাবে ৫০ লাখ টাকা। ছয় দলের মালিকানায় কারা আছে সেই বিষয়েও জানিয়েছে বিসিবি।

এর মধ্যে বরিশালের মালিকানায় আছে ফরচুন শুজ লিমিটেড, চট্টগ্রামের মালিকানায় রয়েছে ডেল্টা স্পোর্টস লিমিটেড (আখতার গ্রুপ)। কুমিল্লার মালিকানায় আছে কুমিল্লা লিজেন্ডস লিমিটেড, ঢাকার ফ্যাঞ্চাইজিটি কিনেছে রুমা ফ্র্যাব্রিক্স লিমিটেড ও মার্ন স্টিল লিমিটেড। এ ছাড়া খুলনার মাইন্ড ট্রি গ্রুপ ও সিলেটের মালিকানায় থাকছে প্রগতি গ্রিন অটো রাইস মিলস লিমিটেড।

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.