গ্রামবাসীর বুদ্ধিমত্তায় বেঁচে গেল বহু মানুষের প্রাণ।

জয়পুরহাটের পাঁচবিবি কোকতারা এলাকায় স্থানীয়দের তাৎক্ষণিক বুদ্ধিম;ত্তায় ভ;য়া;বহ একটি দু;র্ঘ;ট;না থেকে রক্ষা পেয়েছে একটি ট্রেন। এতে এ;ড়া;;নো গেছে বহু প্রাণহানি।

শুক্রবার (২০ আগস্ট) সকালের দিকে এ ঘটনা ঘটে। ঘটনার প্রায় দুই ঘণ্টা পর ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক হয়।

লোকো মাস্টার শাহ আলম জানান, বৃহস্পতিবার (১৯ আগস্ট) রাত পৌনে ১১টায় ঢাকা-কমলাপুর থেকে ছেড়ে আসে পঞ্চগড় এক্সপ্রেস। শুক্রবার ভোর সাড়ে ৬টায় পাঁচবিবি স্টেশন অতিক্রম করে হিলি স্টেশনের উদ্দেশ্যে যাচ্ছিল ট্রানটি।

ট্রেনটি প্রায় ৮০ কিলোমিটার গতিতে চলছিল। ওই রেললাইনে প্রায় ৮ ইঞ্চি জায়গা ভাঙা ছিল। বিষয়টি দেখতে পান স্থানীয়রা।

পরে কয়েকজন স্থানীয় লাল গামছা উড়িয়ে ট্রেন থামানোর সংকেত দেন। তাদের তৎপরতা ও বুদ্ধিমত্তায় ট্রেনটি বড় ধরনের দুর্ঘটনা থেকে রক্ষা পেয়েছে।

স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, স্থানীয় শফিকুল ইসলাম, তার ভাতিজা গুলজার ও নাজির হোসেন নামের এক তরুণ রেললাইনের ভাঙা অংশ দেখে ট্রেন থামানোর সিদ্ধান্ত নেন।

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.