গুঞ্জন উড়িয়ে কোহলি বললেন যারা এসব ছড়ায় তাদের ধরুন

ভারতের ক্রিকেটে গত কয়েকদিন ধরে বিরাট কোহলিকে ঘিরে শোনা যাচ্ছে একের পর এক গুঞ্জন। প্রথমত তারকা ওপেনার রোহিত শর্মার সঙ্গে তার সম্পর্কে ফাটল। এরপর শোনা যায়, অধিনায়কত্ব কেড়ে নেওয়ায় দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে ওয়ানডে সিরিজ থেকে ছুটি চেয়েছেন তিনি।

শুধু তাই নয়, টি-টোয়েন্টি থেকে ওয়ানডে অধিনায়কত্বও রোহিতকে দেওয়ায় মনঃক্ষুণ্ণ হয়েছেন কোহলি- এমন খবরও বেরিয়েছে ভারতের সংবাদমাধ্যমগুলোতে। বুধবার (১৫ ডিসেম্বর) আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলনে এই সব গুঞ্জন উড়িয়ে দিয়েছেন কোহলি। জানিয়েছেন দক্ষিণ আফ্রিকায় ওয়ানডে খেলবেন তিনি।আগামী ২৬ ডিসেম্বর থেকে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ খেলবে ভারত। যা শেষ হবে ১৫ জানুয়ারি।

এরপর ১৯ জানুয়ারি থেকে ২৩ জানুয়ারি পর্যন্ত হবে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ। প্রায় ৪০ দিনের সফরে দেশ ছাড়ার আগে আজ সংবাদমাধ্যমে কথা বলেছেন ভারতের টেস্ট অধিনায়ক কোহলি।ওয়ানডে সিরিজ থেকে ছুটি চাওয়ার বিষয়ে তিনি বলেছেন, ‘আমি সবসময়ই ওয়ানডে দলে খেলার জন্য প্রস্তুত ছিলাম, এখনও আছি। আমাকে তো এই বিষয়ে প্রশ্ন করারই কোনো মানে নেই।

এই প্রশ্নটা আপনারা তাদেরকে করুন যারা নিজেদের বিভিন্ন সূত্র দিয়ে এই খবর প্রকাশ করেছে। কারণ আমি সবসময়ই ওয়ানডে সিরিজের জন্য এভেইলেবল ছিলাম।’কোহলি আরও বলেন, ‘ক্রিকেট বোর্ডের সঙ্গে ছুটি চাওয়ার বিষয়ে কখনও কোনো আলোচনাই হয়নি আমার। তো এটাই আর কি, আগেও এমন অনেক নানান কথাবার্তা শোনা গেছে বিভিন্ন ঘটনাকে ঘিরে।

যেগুলো একদমই সত্য নয়।’টি-টোয়েন্টি থেকে নিজে অধিনায়কত্ব ছাড়লেও, ওয়ানডেতে অনেকটা ইচ্ছার বিরুদ্ধেই অধিনায়কত্ব ছাড়তে হয়েছে কোহলিকে। কেননা টি-টোয়েন্টির অধিনায়কত্ব ছাড়ার সময় তিনি বোর্ডকে জানিয়েছিলেন, ওয়ানডে ও টেস্টে দায়িত্ব চালিয়ে নেওয়ার ইচ্ছা রয়েছে তার। কিন্তু সেটি আর পারছেন না।ওয়ানডে অধিনায়কত্ব হারানোর বিষয়ে তিনি বলেছেন,

(দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের) টেস্ট দল গোছানোর দেড় ঘণ্টা আগে আমাকে ফোন করা হয়েছিল, স্কোয়াড নিয়ে আলোচনার জন্য। সেই ফোন রাখার আগে নির্বাচক প্যানেলের সদস্যরা আমাকে জানান, ওয়ানডেতে আমি অধিনায়ক থাকছি না। আমি তখন স্বাভাবিকভাবেই বলেছি, আচ্ছা ঠিক আছে। এরপর আর কোনো কথা হয়নি।’এসময় রোহিতের সঙ্গে ব্যক্তিগত সম্পর্কের বিষয়ে কোহলি বলেন,

(সম্পর্কে ফাটল ধরার গুঞ্জনের) কারণগুলো আমি বুঝতে পারছি। বোর্ড খুবই যুক্তিযুক্ত কারণে এ সিদ্ধান্তটি নিয়েছে। তবে আমার ও রোহিতের মধ্যে কোনো সমস্যা নেই। গত দুই বছর ধরে এটি বলতে বলতে আমি ক্লান্ত। দলের ক্ষতি হবে এমন কোনো সিদ্ধান্ত আমি নেবো না।’

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.