এই ১ জন খেলোয়ারকে বাদ দিয়ে, যে তারকাকে আনার জন্য অধিনায়কত্ব ছাড়ার হুমকি দিয়েছিলেন ধোনি

মহেন্দ্র সিং ধোনি ২০০৮ সালে ভারতীয় দলের অধিনায়কত্ব গ্রহণ করেন। ধোনি যখন দলের অধিনায়কত্ব নেন, তখন তার সামনে অনেক চ্যালেঞ্জ ছিল। যেমন তরুণদের সুযোগ দেওয়া এবং ভবিষ্যতের জন্য দল তৈরি করা। সেই সমস্ত চ্যালেঞ্জ লড়াই করার সময় ধোনি ভারতীয় দলকে অনেক ঐতিহাসিক মুহূর্ত উপহার দিয়েছেন।

২০০৮ সালে ধোনি অধিনায়কত্ব ছাড়ার হুমকি দিয়েছিলেন বলে জানা গেছে। তখন জানা যায়, বাছাই কমিটির বৈঠকের তথ্য ফাঁস হয়। খবর অনুযায়ী, আরপি সিংয়ের পরিবর্তে ইরফান পাঠানকে দলে অন্তর্ভুক্ত করা হলে নির্বাচকদের অধিনায়কত্ব ছেড়ে দেওয়ার হুমকিও দিয়েছিলেন ধোনি।

২০০৮ সালে, একটি মিডিয়া রিপোর্টে প্রকাশ করা হয়েছিল যে ধোনি আরপি সিংয়ের পরিবর্তে ইরফান পাঠানকে বেছে নেওয়ার বিষয়ে দ্বিমত পোষণ করেছিলেন। নির্বাচকরা আরপি সিংয়ের জায়গায় ইরফান পাঠানকে বেছে নিতে বললে ধোনি অধিনায়কত্ব ছাড়ার কথা বলেছিলেন।

যদিও এক সাক্ষাৎকারে এই ঘটনার পুরো সত্যতা জানিয়েছেন আরপি সিং। আরপি সিং বলেছেন যে মহেন্দ্র সিং ধোনি তার অধিনায়কত্বে দল নির্বাচনের ক্ষেত্রে কখনও পক্ষপাতদুষ্ট আচরণ করেননি।

আরপি সিংয়ের মতে, মহেন্দ্র সিং ধোনি এমন একজন ক্যাপ্টেন ছিলেন না, যিনি দল বাছাই করার সময় মাথায় রাখেন তিনি কোন খেলোয়াড়ের সাথে বন্ধুত্ব করছেন।

আরপি সিং বলেছিলেন যে যখন ভাল খেলোয়াড় বাছাইয়ের কথা আসে, তখন ধোনি তার দলের জন্য একটি ন্যায্য সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন এবং যখন বিষয়টি ফাঁস হয়ে যায়, তখন এটি তাকে প্রভাবিত করেনি।

আসুন আমরা আপনাকে বলি যে ধোনির অধিনায়কত্বে ভারত আইসিসি বিশ্ব টি২০ (২০০৭), ক্রিকেট বিশ্বকাপ (২০১১) এবং আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি (২০১৩) শিরোপা জিতেছে। এ ছাড়া ২০০৯ সালে ভারত প্রথমবারের মতো টেস্টে এক নম্বর হয়ে উঠেছিল।

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.