অবশেষে নিজেই প্রকাশ করলো তার বার্ষিক আয় কত :পরীমনি

সিনেমা মুক্তির আগেই তারকা বনে যান পরীমনি! অঢেল টাকা আর অভিজাত জীবন যেন স্বেচ্ছায় ধরা দেয়। তার কাছে দামি গাড়ি, কোটি টাকার ফ্ল্যাট, মূল্যবান অলঙ্কার কি নেই তার? এছাড়াও কয়েকটি ব্যাংকে মোটা অঙ্কের টাকা রয়েছে এই নায়িকার।

চিত্রনায়িকা পরীমনির ব্যবহৃত ফিয়াট অটোমোবাইলসের ‘মাসেরাতি’ ব্র্যান্ডের গাড়িটি নিয়েও আলোচনা শুরু হয়েছে। প্রায় সাড়ে ৩ কোটি টাকা দামের এই গাড়ির উৎস খুঁজছে তদন্ত সংশ্লিষ্টরা। যদিও কাগজে-কলমে পরীমনি প্রায় কোটি টাকা দামের টয়োটা হ্যারিয়ার গাড়ির মালিক।

২০২০ সালের ২৪ শে জুন তার সাদা রঙের হ্যারিয়ার গাড়িটি দুর্ঘটনায় দুমড়ে মুচড়ে যায়। এর ২৪ ঘণ্টা পার হতে না হতেই তিনি প্রায় সাড়ে ৩ কোটি টাকার রয়েল ব্লু-রঙের মাসেরাতি গাড়ি কেনেন। ইতালিয়ান অভিজাত গাড়ি নির্মাতা প্রতিষ্ঠান ফিয়াট অটোমোবাইলসের জনপ্রিয় ব্র্যান্ড ‘মাসেরাতি’।

রাজধানীর অভিজাত এলাকা বনানী ১৯/এ সড়কের একটি বাড়ির পাঁচতলার একটি ফ্ল্যাটে বসবাস করেন পরীমনি। বিলাসবহুল এ ফ্ল্যাটের দাম দশ কোটি টাকারও অধিক বলে অনেকে বলছেন। সেই ফ্ল্যাট নিজের হলেও এর পেছনে প্রতি মাসেই খরচ করতে হয় কাড়ি কাড়ি টাকা।

প্রায় অর্ধযুগের ক্যারিয়ারে এধরনের বিলাসবহুল ফ্ল্যাট ও দামি গাড়িতে চড়া চলচ্চিত্র জগতের প্রতিষ্ঠিত ও জনপ্রিয় অনেক অভিনেতার পক্ষেই সম্ভব নয়। তাহলে পরীমনির ক্ষেত্রে এমনটা কীভাবে সম্ভব হলো? প্রশ্ন জাগতেই পারে। প্রশ্ন উঠতে পারে তার বার্ষিক আয় নিয়েও। অবাক করা বিষয় হচ্ছে, রিটার্নে পরীমনি বার্ষিক আয় দেখিয়েছেন প্রায় সাড়ে নয় লাখ টাকা!

২০১৯-২০ অর্থবছরে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডে (এনবিআর) পরীমনি যে আয়কর রিটার্ন দাখিল করেন, সেখানে তিনি ৫০ হাজার টাকার কর পরিশোধ করেন। পরিশোধ করা করের বড় অংশই মূলত গাড়ির কর হিসেবে জমা হয়েছে। তবে আয়কর রিটার্নের কোথাও পরীমনির ওই ফ্ল্যাটের মালিকানার বিষয়ে কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি।

২০১৪ সালের নভেম্বরে নিজের নামে কর শনাক্তকরণ নম্বর (টিআইএন) গ্রহণ করেন পরীমনি। কর অঞ্চল- ১২ এর আওতায় ২০১৬ সালে তিনি প্রথম আয়কর রিটার্ন (২০১৫-১৬ অর্থবছর) জমা দেন। প্রথম বছরের রিটার্নে আয় দেখিয়েছিলেন প্রায় ৭ লাখ টাকা। সর্বশেষ ২০১৯-২০ অর্থবছরে প্রায় সাড়ে ৯ লাখ টাকা আয় দেখান পরীমনি।

প্রশ্ন উঠেছে, চলচ্চিত্রে তিনি যে কয়টি সিনেমায় অভিনয় করেছেন এবং যেগুলো মুক্তি পেয়েছে সবগুলোতে তার অভিনয়ের পারিশ্রমিক মিলিয়েও তার গাড়ির মূল্যের সমান হবে না। ফ্ল্যাট কেনা তো অনেক পরের কথা। আর পরীমনিও জানালেন, তার বার্ষিক আয় মাত্র সাড়ে ৯ লাখ টাকা!

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.