অবশেষে জানা গেল,পরীমনির সুগার ড্যাডি কে !

ঢাকায় চলচিত্রের আ’লোচিত স’মালো’চিত চিত্রনায়িকা পরীমনি গ্রে’ফতার হয়ে রিমা’ন্ডে আছেন। সিআইডির একটি বিশেষ সূত্র থেকে জানা যায়, আওয়ামী লীগের সাবেক সাংসদকে পরীমনি অ’শ্লী’ল আধুনিকতার নামে সুগার ড্যা’ডি হিসাবে বেছে নেন। জানা যায়,পরীমনির সুগার ড্যাডি নরসিংদী দুই আসনের সাবেক সাংসদ কাম’রুল আশারফ খান পোটন। তিনি ২০১৪ সালে নরসিংদী দুই আসন (পালশ উপজে’লা) থেকে নির্বাচিত হন।

এছাড়াও তার বি’রু’দ্ধে রয়েছে সার ব্যবসা স’র্ম্পকে নানা অনিয়’মের অ’ভি’যোগ। পোটনের সঙ্গে পরীমনির গভীর এবং ঘনি’ষ্ঠ সম্প’র্ক রয়েছে বলেও নিশ্চিত করেছে সূত্রটি। পরীমনির মোবাইলের কললি’স্ট যাচাইবাছাই করছে সিআইডি ( অ’পরা’ধ তদ’ন্ত বিভাগ)। তার সঙ্গে কথোপকথনের রেক’র্ডও উ’দ্ধার হয়েছে। তার মোবাইল ফোনে ছিলো দেশের প্রভাবশালী কিছু ব্যক্তির অডিও রেকর্ড ও ভি’ডিও ফুটেজ। যা ব্যবহার করে প্রায় সময়ই ওই সব ব্যক্তিদের ব্ল্যা’কমেই’ল করতো।

পরীমনির ফেসবুক, মেসেঞ্জার ও হোয়াটসআপ ডিজিটাল ফরে’নসিক ল্যাবে পরীক্ষা-নিরী’ক্ষা চালাচ্ছে সিআইডি। পরীমনির স’ঙ্গে ঘনি’ষ্ঠ একটি ভি’ডিও উ’দ্ধার করা হয়েছে বলে জানা গেছে। এ বিষয়ে সাবেক কাম’রুল আশারফ খান পোটনকে ফোন করলে তিনি ফোনটি ধরেন। পরিচয়ের পর নিউজ সং’ক্রান্ত বিষয়ে জানতে চাইলে বলেন, ‘এটি আমা’র নম্বর নয়।’বলে ফোন কে’টে দনে। তবে গ্রামীণ ফোন অ’পারেটরের শেষ ২ ডিজিট ১৯, পোটনের ব্যবহৃত ব্যাক্তিগত নম্বর সেটি নিশ্চিত হওয়া গেছে।

তদ’ন্ত সংশ্লিষ্টদের কাছে পরিমনী স্বীকার করেছেন, কাম’রুল আশরাফ খান পোটনের সাথে তার বিশেষ স’ম্পর্ক রয়েছে। এমনকি তারা দেশে এবং দেশের বাইরেও বিভিন্ন সময় একান্তে সময় পার করেছেন। উল্লেখ্য, সাবেক এমপি কাম’রুল আশরাফ খান পোটন বাংলাদেশ ফার্টিলাইজার এসোশিয়েশনের সভাপতি হিসাবে দায়িত্ব পালন করছেন। এমপি থাকাকালীন তার বি’রু’দ্ধে ৭০০ কোটি টাকা দু’র্নী’তির অ’ভি’যোগ রয়েছে।

এছাড়া তিনি দেশে আম’দানিকৃত সার পোটন ট্রে’ডার্সের মাধ্যমে সরকারি গোডাউনে পৌঁছে দেয়ার নাম করে কালোবাজারে বিক্রি করে কোটি কোটি টাকার অ’বৈধ সম্পদের মালিক হয়েছেন। কালো টাকা দিয়ে তিনি গুলশানে বাড়ি করেছেন। ২০১৮ সালে এপ্রিলে দুর্নী’তি দম’ন কমিশনে তাকে তলবও করা হয়েছিল।

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.